পাশে ছিলাম, পাশে পেলাম

‘এসো কিছু করি’ বরাবরই তার ছাত্রছাত্রীদের সার্বিক উন্নয়নের প্রতি দায়বদ্ধ । সবরকম সমস্যাতেই আমরা ওদের পাশে থাকতে চাই। তাই প্রবল ঘূর্ণিঝড় আমফান দক্ষিণবঙ্গের উপকূলবর্তী অঞ্চলে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি করার পর আমরা আমাদের বর্তমান ২০১৯-২১ ব্যাচের স্টুডেন্টদের ফোন করে তাদের অবস্থা সম্পর্কে খবর নিই। সবার সাথে কথা বলে আমরা বুঝি যে আমাদের পাঁচজন ছাত্রছাত্রীর বাড়িতে এই ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এই মুহূর্তে বাড়ির মেরামতি করতে হবে অথচ করোনা পরবর্তী সময়ে সকলেই বেশ অর্থকষ্টে আছেন। আমরা ‘এসো কিছু করি’- র সদস্য-স্বেচ্ছাসেবকরা তাই নিজেরা কিছু টাকা তুলে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের পাশে থাকার চেষ্টা করি। এককালীন কিছু টাকা পেলে তা বাড়ি মেরামতির কাজে লাগানো যাবে এই ছিল মূল ভাবনা। আমাদের কাছে সবচেয়ে আনন্দের বিষয় হল EKK – র প্রাক্তন ছাত্রছাত্রীরাও খুব উৎসাহের সাথে এতে যোগদান করেছে। ‘এসো কিছু করি’-র জন্মলগ্ন থেকেই আমরা চেয়েছি আমাদের আজকের ছাত্ররাই কালকের দায়িত্ব নিক। আমরা চেয়েছি শুধু ভালো রেজাল্ট করে ভালো চাকরি পাওয়াই নয় তারা যেন সমাজের প্রতি দ্বায়বদ্ধ থাকে। তাই আজ যখন চন্দন, লক্ষ্মী, অভিষেক, শিল্পী, পার্থ, অমিত রা এগিয়ে এসে কল্যাণী খালুয়া, অঞ্জন মাইতি, সায়ন গড়াই, তন্ময় জানা আর অর্পিতা প্রধানের পাশে দাঁড়ালো তখন মনে হয় আমাদের এই চেষ্টা কিছুটা সার্থক হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *