করোনাভাইরাস সংক্রমণের এই দুঃসময়ে ‘এসো কিছু করি’র দু’জন প্রাক্তন ছাত্র সেবায় নিয়োজিত। দুজনেই ডাক্তার। ছবিতে পিপিই পরে বাম দিকে Subrata Barman আর ডান দিকে Sabyasachi Khalua। সুব্রত রয়েছে জলপাইগুড়ি সুপার স্পেশালিটি হসপিটালে। আর সব্যসাচী নীলরতন সরকার হসপিটালে। ইকেকে’র নক্ষত্রেরা নিজেদের যোগ্যতায় সমাজের কোনে কোনে ছড়িয়ে গিয়ে মানুষের প্রয়োজনে পাশে দাঁড়াবে – শুরু থেকেই ইকেকে এমন স্বপ্ন দেখেছিল। তাই এই মুহূর্তে স্বপ্ন সত্যি হওয়ার ভাল লাগা যেমন আছে, তেমনিই ওরা যাতে ভাল থাকে – সে চিন্তাও রয়েছে।
অনেক অনেক শুভেচ্ছা ওদের দু’জনের জন্য।

Subrata Barman & Sabyasachi Kalua, Doctors

এসো কিছু করি’র ‘মেধা’ প্রকল্পের ২০০৮ সালের অন্যতম ছাত্র ছিল মিঠুন গায়েন। সুন্দরবনের প্রত্যন্ত অঞ্চল হিঙ্গলগঞ্জের ছেলে মিঠুন। এরপর ২০১০ সালে উচ্চমাধ্যমিক পাশ করে মিঠুন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ার সুযোগ পায়। ২০১৪ সালে সেখান থেকে পাশ করে মিঠুন এখন কর্মরত পাওয়ার গ্রিড কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া লিমিটেডে। সম্প্রতি মিঠুন ইকেকে’র জন্য পাঠিয়েছে ডোনেশন। আর জানিয়েছে, এইভাবেই ও ইকেকে’র ছাত্রছাত্রীদের পাশে থাকতে চায়।  মিঠুনের জন্য আমরা গর্বিত। একজনের পাশে আর একজন দাঁড়াবে- ইকেকে তো এমন স্বপ্নই দেখে চলেছে।

Mithun Gayen, Engineer, Power Grid Corporation of India